মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

জেলা প্রশাসকের বার্তা

(সংক্ষিপ্ত পরিচিতিঃ নবাগত জেলা প্রশাসক, জনাব এস. এম. আব্দুল কাদের ১৯৭৬ সালে ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। তিনি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পুরকৌশলে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। পরবর্তীকালে সরকার ও রাজনীতি এবং public policy and management বিষয়ে আরো দু’টি মাস্টার্স ডিগ্রি সম্পন্ন করেন।

          বিসিএস প্রশাসন ২০ ব্যাচ এর কর্মকর্তা জনাব এস. এম. আব্দুল কাদের এর চাকুরী জীবন শুরু হয় ২০০১ সালে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যোগদানের মধ্যদিয়ে। পরবর্তীকালে চট্রগ্রাম মহানগর ও সিলেট সদরের এসিল্যান্ড, চট্রগ্রামের এনডিসি ও প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে কক্সবাজারে নিয়োজিত ছিলেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসাবে তিনি চারটি উপজেলায় কাজ করেছেন। উপজেলা গুলো হলো- গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলা, নেত্রকোনা জেলার মদন ও খালিয়াজুড়ি উপজেলা এবং ফরিদপুর জেলার নগরকান্দা উপজেলা।

          তিনি তিন বছর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে চট্রগ্রাম জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে দায়িত্ব পালন করেন। তাছাড়া এক বছর উপ-সচিব হিসেবে ভূমি মন্ত্রণালয়ে এবং দুই বছর ক্যান্টনমেন্ট এক্সিকিউটিভ অফিসার হিসেবে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডে দায়িত্ব পালন করেন।

          বিগত ২৫/০২/২০১৮ খ্রি. তারিখ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার তাঁকে জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে নির্বাহী আদেশ প্রদান করে প্রজ্ঞাপন জারি করেন।

          ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত। তাঁর স্ত্রীর নাম আয়েশা বিনতে হোসেন। দুই সন্তান নিয়ে তাঁদের পরিবার। ছেলে এস. এম. ইমাম হোসেন অষ্টম শ্রেণীতে পড়ে এবং মেয়ে ফাতেমাতুজ্জোহরা তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ে।)

 

         (বার্তাঃ রাজশাহী জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে স্বাগতম। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় সরকারী সেবাকে জনগনের দোর-গোড়ায় পৌছে দেয়ার লক্ষ্যে আমাদের এই প্রয়াস। এতে জেলা প্রশাসন কর্তৃক প্রদত্ত সকল সেবা এবং সেবা গ্রহণের পদ্ধতি সম্পর্কে সহজে জানা যাবে। জেলার সংক্ষিপ্ত পরিচিতি, নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিবরণসহ জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন সরকারী দপ্তরসমূহের কার্যক্রম ও কাঠামো সম্পর্কে প্রয়োজনীয় তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে। এ কার্যালয়ের বিবেচ্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য এবং বিজ্ঞপ্তিসমুহ নিয়মিত প্রকাশ ও হালনাগাদ করা হবে। পাশাপাশি যে কোন অভিযোগ বা পরামর্শের জন্য সরাসরি এ তথ্য বাতায়ন (ওয়েব সাইট) ব্যবহার করা যাবে যার মাধ্যমে মেইল-বক্সের সহায়তায় তা কর্তৃপক্ষের নজরে আনা যাবে। প্রয়োজনে সরাসরি যে কোন কর্মকর্তাকে ই-মেইল করে প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করা যাবে।আপনাদের সকলের সহযোগিতায় ও ব্যবহারের ফলে তথ্য বাতায়নটি দ্রুত জনপ্রিয় ও প্রয়োজনীয় একটি সাইটে পরিণত হবে বলে আমার বিশ্বাস। আপনার সুচিন্তিত পরামর্শ এ ওয়েবসাইটটিকে যেমন সমৃদ্ধ করতে পারে তেমনি সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে জনগণের নিকট জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে এ ওয়েবসাইটটি যথার্থ ভূমিকা রাখবে।)

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :
Facebook Twitter